পর্যটন অর্থনীতি এগিয়ে নেয়ার পাশাপাশি দেশের ভাবমুর্তি উজ্জল করে; প্রজম্মের ট্যুরিজম আড্ডায় অভিমত

2nd-adda.jpg

পৃথিবীর প্রায় অধিকাংশ দেশে তাদের অর্থনীতিকে এগিয়ে রাখতে পর্যটনকে বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়। উন্নত দেশ গুলোর পাশাপাশি উন্নয়নশীল দেশ গুলো ইদানিং পর্যটনের দিকে ঝুকছে। কারন, এতে করে দ্রুততম সময়ে অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হওয়া যায়। একই সঙ্গে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট দেশের ভাবমূর্তিও উজ্জ্বল হয়।

ট্রাভেলটিউন২৪.কম ও দ্যা বাংলাদেশ ট্রাভেল এর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত গতকাল শুক্রবার ১৮ই অাগস্ট২০১৭ বিকাল চার টায় বনানীর গ্লাসিয়া হোটেল এন্ড রিসোর্ট এ পর্যটন বিষয়ক আড্ডায় প্রজম্মের পর্যটন প্রতিনিধিদের স্বতফুর্ত আলোচনায় কথা গুলো উঠে আসে। অনুষ্টান পরিচালনা করেন জাহাঙ্গীর আলম শোভন।

কিন্তু আমাদের দেশের ব্যাপারটা ভিন্ন বিগত ২০১৬ সালকে প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক পর্যটন বর্ষ ঘোষনার পরও দৃশ্যামান কোন অগ্রগতি লক্ষ্য করা যায়নি।পর্যটনকে এগিয়ে নেয়ার জন্য নিন্মোক্ত সুপারিশমালা উঠে এসেছে পর্যটন বিষয়ক আড্ডায়।

দেশে পর্যটনের উন্নয়নের জন্য পর্যটন আড্ডার দ্বিতীয় দিনে আজ বেশ কিছু সুপারিশ উঠে এসেছে।
১. পর্যটন নীতিমালা প্রণয়ন
২. প্রাথমিক স্তর থেকে পর্যটনের শিক্ষা চালু করা
৩. ইউরোপের মতো শিক্ষায়তনে ছুটির দিন বৃদ্ধি করা। তিন মাস না হোক অন্তত ১ মাসের একটি দীর্ঘ ছুটির উদ্যোগ নেয়া যাতে এ সময় মানুষ পরিবার নিয়ে দেশ বিদেশে ঘুরতে পারে।
৪. ইলেকট্রনিক মিডিয়া ও প্রিন্ট মিডিয়াতে পর্যটন নিয়ে আলাদা প্রোগ্রাম ও বিভাগ চালু করা।
৫. বিনা খরচে ভালো মানের হোটেল রেষ্টুরেন্ট বা অন্যান্য পর্যটন সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানে পর্যটনের ছাত্রছাত্রীদের ইন্টার্নী করার সুযোগ দেয়া।
৬. পর্যটনের সর্বস্তরে পেশাদারিত্ব উন্নয়নের উদ্যোগ নেয়া।
৭. ট্যুরিজম ডেভেলাপমেন্ট অথরিটি নামে একটি শক্তিশালী রেগুলেটরী প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করা
৮. কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের উন্নয়ন শুধুমাত্র তিন কিলোমিটার বিচের মধ্যে আটকে না রেখে ১২০ কিলো মিটার বিচের সম্ভাবনা কাজে লাগানোর উদ্যোগ নেয়া।
৯. ট্যুর অপারেটর এবং ট্যুর গাইডগণ দেশের মর্যাদা রক্ষা ও বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনে কাজ করেন। তারা প্রত্যেকে দেশের দূত হিসেবে কাজ করেন। তাদের প্রশিক্ষণ, জীবন মানের উন্নয়ন, সামাজিক ও বাণিজ্যিক মর্যাদা বৃদ্ধির উদ্যোগ গ্রহণ করা।
১০. পরিবহন, আবাসন, খাদ্যের মূল্য এবং সেবা নিয়ন্ত্রনের জন্য উদ্যোগ গ্রহন করা।

উক্ত অনুষ্টানে ট্যুর অপারেটর,ট্রাভেল এজেন্ট,অনলাইন পেমেন্ট সার্ভিস প্রোভাইডার, ইভেন্ট অর্গানাইজার, হোটেল মালিক , ট্যুরিস্ট ট্রাস্টপোর্ট মালিক সহ ত্রিশটির অধিক প্রতিষ্টানের প্রতিধিনিগন অংশগ্রহন করেন। -বেলাল ভুট্টো

Top