bayan escort izmir
porno izle sex hikaye
corum surucu kursu malatya reklam

বিশ্বের নামকরা ১০ এয়ারলাইনস

airlines.jpg

বিশ্বসেরা ১০েএয়ারলাইনসের তালিকা প্রকাশ করেছে যুক্তরাজ্যে ভিত্তিক প্রতিষ্টান স্ক্যাইটেক্স। যা এভিয়েশন শিল্পের অস্কার হিসেবে বিবেচিত হয়ে আসছে।

যুক্তরাজ্যের লন্ডনে ল্যাংহাম হোটেলে বসেছিল এই জমজমাট পুরস্কারের ১৮তম আসর। বিজয়ীদের মধ্যে জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনে পুরস্কার দেওয়া হয়।

২০১৭ সালের আগস্ট থেকে ২০১৮ সালের মে পর্যন্ত ৩৩৫টি এয়ারলাইন্সের সেবার ওপর অনলাইনে পরিচালিত জরিপ অনুযায়ী ভ্রমণকারীদের ভোটে বিজয়ী তালিকা চূড়ান্ত হয়েছে। ২ কোটিরও বেশি ভ্রমণকারী এতে অংশ নেন।

১৯৯৯ সাল থেকে গ্রাহকদের সন্তুষ্টি বিষয়ক সরাসরি প্রতিক্রিয়ার ওপর ভিত্তি করে দেওয়া হচ্ছে মুক্ত ও নিরপেক্ষ এই পুরস্কার। বিশ্বজুড়ে ভ্রমণকারীরা ভোট দিয়ে সেরাদের নির্বাচন করেন। চলুন দেখি বিশ্বের সেরা ১০ এয়ারলাইন্সের তালিকা ও সেগুলোর সংক্ষিপ্ত পরিচিতি।
বিশ্বের সেরা ১০ এয়ারলাইন্স
১. সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্স
২. কাতার এয়ারওয়েজ
৩. এএনএ অল নিপ্পন এয়ারওয়েজ
৪. এমিরেটস
৫. ইভিএ এয়ার
৬. ক্যাথে প্যাসিফিক
৭. লুফথানসা
৮. হাইনান এয়ারলাইন্স
৯. গারুদা ইন্দোনেশিয়া
১০. থাই এয়ারওয়েজ

সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্স
ওয়ার্ল্ড এয়ারলাইন অ্যাওয়ার্ডসে এবার এক নম্বরে আছে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্স। গত বছর স্কাইট্রাক্সের তালিকায় দুই নম্বরে ছিল এই আকাশসেবা প্রতিষ্ঠান। তাদের বহরে রয়েছে ১২৫টি উড়োজাহাজ। ৬৪টি রুটে যাত্রী পরিবহন করে এয়ারলাইন্সটি। বাংলাদেশ থেকেও ফ্লাইট পরিচালনা করে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্স।

এ বছর ওয়ার্ল্ড’স বেস্ট এয়ারলাইন পুরস্কার ছাড়াও সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্স পেয়েছে ওয়ার্ল্ড’স বেস্ট ফার্স্ট ক্লাস, বেস্ট এয়ারলাইন ইন এশিয়া, বেস্ট ফার্স্ট ক্লাস সিট, বেস্ট ফার্স্ট ক্লাস লাউঞ্জ ইন এশিয়া, বেস্ট বিজনেস ক্লাস লাউঞ্জ ইন এশিয়া, বেস্ট ফার্স্ট ক্লাস ইন এশিয়া, বেস্ট বিজনেস ক্লাস ইন এশিয়া, বেস্ট প্রিমিয়াম ইকোনমি ক্লাস ইন এশিয়া অ্যাওয়ার্ডস।

কাতার এয়ারওয়েজ
স্কাইট্রাক্সের তালিকায় ২০১৭ সালে শীর্ষে থাকা কাতারের জাতীয় এয়ারলাইন্স কাতার এয়ারওয়েজ এবার নেমে গেছে দুই নম্বরে। তাদের বহরে রয়েছে ২২০টি উড়োজাহাজ। ১৫০টির বেশি রুটে যাত্রী পরিবহন করে এয়ারলাইন্সটি।

এ বছর স্কাইট্রাক্সের ওয়ার্ল্ড’স বেস্ট বিজনেস ক্লাস, বেস্ট বিজনেস ক্লাস সিট, ওয়ার্ল্ড’স বেস্ট ফার্স্ট ক্লাস এয়ারলাইন লাউঞ্জ, বেস্ট এয়ারলাইন ইন দ্য মিডেল ইস্ট, বেস্ট বিজনেস ক্লাস ইন দ্য মিডেল ইস্ট, বেস্ট বিজনেস ক্লাস লাউঞ্জ ইন দ্য মিডেল ইস্ট, বেস্ট ইকোনমি ক্লাস ইন দ্য মিডেল ইস্ট, বেস্ট কেবিন ক্রু ইন দ্য মিডেল ইস্ট, বেস্ট এয়ারলাইন কেবিন ক্লিনলিনেস ইন দ্য মিডেল ইস্ট অ্যাওয়ার্ডগুলো অর্জন করেছে কাতার এয়ারওয়েজ।

এএনএ অল নিপ্পন এয়ারওয়েজ
ওয়ার্ল্ড এয়ারলাইন অ্যাওয়ার্ডসে ২০১৭ সালের মতো তিন নম্বর স্থানটি অক্ষুণ্ন রেখেছে জাপানের এএনএ অল নিপ্পন এয়ারওয়েজ। ২০১৩ সাল থেকে টানা ছয় বছর ধরে ওয়ার্ল্ড ফাইভ স্টার এয়ারলাইনের স্বীকৃতি অর্জনে সক্ষম হয়েছে এই আকাশসেবা প্রতিষ্ঠান।

১৯৫২ সালে দুটি হেলিকপ্টার দিয়ে এয়ারলাইন্সটির যাত্রা শুরু হয়। বর্তমানে ৯৭টি গন্তব্যে ফ্লাইট পরিচালনা করছে এএনএ। তাদের বহরে রয়েছে ২২১টি উড়োজাহাজ। এ বছর একইসঙ্গে বেস্ট এয়ারলাইন স্টাফ ইন এশিয়া, ওয়ার্ল্ড’স বেস্ট এয়ারলাইন কেবিন ক্লিনলিনেস ও বেস্ট কেবিন ক্রু অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছে অল নিপ্পন এয়ারওয়েজ।

এমিরেটস
১৯৮৫ সালে যাত্রা শুরু করে এমিরেটস। লিজে সংগ্রহ করা দুটি উড়োজাহাজ দিয়ে শুরুটা হলেও বর্তমানে এয়ারলাইন্সটির বহরে রয়েছে ২৫৫টি বিমান। ১৪৩টির বেশি গন্তব্যে যাত্রী পরিবহন করছে এমিরেটস। তাদের বহরে রয়েছে ২২৫টি উড়োজাহাজ। এগুলোর ৯৯ শতাংশেই রয়েছে ওয়াইফাই সুবিধা। প্রত্যেক ফ্লাইটে যাত্রীদের ২০ মেগাবাইট ইন্টারনেট বিনামূল্যে ব্যবহারের সুবিধা দেয় এমিরেটস।

টানা ১৪ বছর ধরে স্কাইট্রাক্সের ওয়ার্ল্ড বেস্ট ইনফ্লাইট এন্টারটেইনমেন্ট অ্যাওয়ার্ড জিতেছে এমিরেটস। এবার যোগ হয়েছে বেস্ট এয়ারলাইন স্টাফ ইন দ্য মিডেল ইস্ট পুরস্কার। ওয়ার্ল্ড এয়ারলাইন অ্যাওয়ার্ডসে গতবারের মতো চার নম্বরে আছে এমিরেটস।

ইভিএ এয়ার
চীনের ইভিএ এয়ারের জন্ম ১৯৮৯ সালে। ৬০টির বেশি রুটে যাত্রী পরিবহন করে এয়ারলাইন্সটি। ৭০টির বেশি বোয়িং ও এয়ারবাসের তৈরি বিমান রয়েছে তাদের বহরে। বোয়িংয়ের তৈরি ২৪টি ৭৮৭ ড্রিমলাইনার বিমান শিগগিরই যুক্ত করতে যাচ্ছে এয়ারলাইন্সটি। ২০০৪ সালে থেকে দশবার এরো ইন্টারন্যাশনাল ম্যাগাজিনের দৃষ্টিতে বিশ্বের ১০ নিরাপদ এয়ারলাইন্সের স্বীকৃতি অর্জন করে ইভিএ।

স্কাইট্রাক্সের তালিকায় ২০১৭ সালে ছয় নম্বরে থাকা ইভিএ এয়ার এবার উঠে এসেছে পাঁচ নম্বরে। ওয়ার্ল্ড এয়ারলাইন অ্যাওয়ার্ডসের এবারের আসরে ওয়ার্ল্ড’স বেস্ট এয়ারপোর্ট সার্ভিসেস পুরস্কার জিতেছে এই আকাশসেবা প্রতিষ্ঠান।

ক্যাথে প্যাসিফিক এয়ারওয়েজ
স্কাইট্রাক্সের তালিকায় ২০১৭ সালে পাঁচ নম্বরে থাকা হংকংয়ের ক্যাথে প্যাসিফিক এয়ারওয়েজ এবার নেমে গেছে ছয় নম্বরে। তাদের বহরে রয়েছে প্রায় ২০০টি উড়োজাহাজ। এশিয়া, উত্তর আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, ইউরোপ ও আফ্রিকার ২০০টিরও বেশি রুটে যাত্রী পরিবহন করে এয়ারলাইন্সটি। এর জন্ম ১৯৪৬ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর।

লুফথানসা
ওয়ার্ল্ড এয়ারলাইন অ্যাওয়ার্ডসে ২০১৭ সালের মতো সাত নম্বর স্থানটি অক্ষুণ্ন রেখেছে জার্মানির সবচেয়ে বড় আকাশসেবা প্রতিষ্ঠান লুফথানসা। এটি অপারেশন পরিচালনা করছে ১৯৫৫ সাল থেকে। এই প্রতিষ্ঠানের স্লোগান ‘সে ইয়েস টু দ্য ওয়ার্ল্ড’। তাদের বহরে রয়েছে ২৭৫টিরও বেশি উড়োজাহাজ। ২২০টি রুটে যাত্রী পরিবহন করে এয়ারলাইন্সটি। এ বছর স্কাইট্রাক্সের বেস্ট এয়ারলাইন ইন ইউরোপ, বেস্ট এয়ারলাইন ওয়েস্টার্ন ইউরোপ, বেস্ট কেবিন ক্রু ইন জার্মানি ও বেস্ট বিজনেস ক্লাস ইন ইউরোপ অ্যাওয়ার্ডগুলো অর্জন করেছে লুফথানসা।

হাইনান এয়ারলাইন্স
স্কাইট্রাক্সের তালিকায় ২০১৭ সালে ৯ নম্বরে থাকা চীনের হাইনান এয়ারলাইন্স এবার উঠে এসেছে আটে। এর জন্ম ১৯৯৩ সালে। এই প্রতিষ্ঠানের স্লোগান দুটি— ‘চেরিশড এক্সপেরিয়েন্স’ ও ‘ফ্লাই ইউর ড্রিমস’। তাদের বহরে রয়েছে ২০০টিরও বেশি উড়োজাহাজ। ১১০টি রুটে যাত্রী পরিবহন করে এয়ারলাইন্সটি।

এ বছর স্কাইট্রাক্সের বেস্ট এয়ারলাইন ইন চায়না, বেস্ট এয়ারলাইন স্টাফ ইন চায়না, বেস্ট বিজনেস ক্লাস কমফোর্ট অ্যামেনিটিস, বেস্ট বিজনেস ক্লাস ইন চায়না, বেস্ট বিজনেস ক্লাস লাউঞ্জ ইন চায়না, বেস্ট ইকোনমি ক্লাস ইন চায়না, বেস্ট কেবিন ক্রু ইন চায়না ও বেস্ট এয়ারলাইন কেবিন ক্লিনলিনেস ইন চায়না অ্যাওয়ার্ডগুলো অর্জন করেছে হাইনান এয়ারলাইন্স।

গারুদা ইন্দোনেশিয়া
স্কাইট্রাক্সের তালিকায় গতবার শীর্ষ দশের শেষ স্থানে থাকলেও গারুদা ইন্দোনেশিয়া এবার উঠে এসেছে ৯ নম্বরে। এর জন্ম ১৯৪৯ সালের ২৬ জানুয়ারি। এই আকাশসেবা প্রতিষ্ঠানের স্লোগান ‘দ্য এয়ারলাইন অব ইন্দোনেশিয়া’। তাদের বহরে রয়েছে ১৪০টিরও বেশি উড়োজাহাজ। ৯০টি রুটে যাত্রী পরিবহন করে এয়ারলাইন্সটি। এ বছর স্কাইট্রাক্সের ওয়ার্ল্ড’স বেস্ট কেবিন ক্রু ও বেস্ট কেবিন ক্রু ইন ইন্দোনেশিয়া বিভাগেও পুরস্কার পেয়েছে গারুদা ইন্দোনেশিয়া।

থাই এয়ারওয়েজ
গত বছর ১১ নম্বরে থাকা থাইল্যান্ডের থাই এয়ারওয়েজ এবার ঢুকেছে ওয়ার্ল্ড এয়ারলাইন অ্যাওয়ার্ডসের শীর্ষ দশে। এই আকাশসেবা প্রতিষ্ঠানের জন্ম ১৯৮৮ সালে। এর স্লোগান দুটি— ‘স্মুথ অ্যাজ সিল্ক’ ও ‘আই ফ্লাই থাই’। তাদের বহরে রয়েছে ৮০টিরও বেশি উড়োজাহাজ। ৯০টিরও বেশি রুটে যাত্রী পরিবহন করে এয়ারলাইন্সটি।

এ বছর স্কাইট্রাক্সের ওয়ার্ল্ড’স বেস্ট ইকোনমি ক্লাস, বেস্ট ইকোনমি ক্লাস অনবোর্ড ক্যাটারিং, ওয়ার্ল্ড’স বেস্ট এয়ারলাইন লাউঞ্জ স্পা, বেস্ট কেবিন ক্রু ইন থাইল্যান্ড ও বেস্ট ইকোনমি ক্লাস ইন এশিয়া বিভাগগুলোতে পুরস্কৃত হয়েছে থাই এয়ারওয়েজ।

সুত্র: ডেস্ক রিপোর্ট

Top
canlı bahis canlı poker canlı casino canlı casino canlı casino canlı casino oyna canlı casino